হাসান তানভীর এর MOTO-TRAVEL ব্লগ

Its better to travel well, then to arrive – Buddha

ছেঁড়াদ্বিপ ভ্রমন (Chera deep tour)

ছেঁড়া দ্বিপ সেন্ট মার্টিন থেকে ৮/১০ কিলো হবে। বোটে করে বা এমন কি হেটেও যাওয়া যায় সাগর তীর ধরে।

কিছু দিন আগে চলে গিয়েছিলাম সেন্ট মার্টন। আমার সাথে ছিলো ২ বন্ধু। আমরা গাইডের কথায় প্ল্যান করলাম ছেড়া দ্বীপ এর। ট্র্যাকিং করে যাবো। তার কথা অনুযায়ী আসল মজা এখানেই।

আসল মজা” নিতে পরদিন ভোরে রওনা দিলাম ছেড়া দ্বীপ।

পরদিন ভোরে ২ জনের খবর নাই। আমি হোটেল ছেড়ে দিয়ে ওনাদের হোটেলে গেলাম। ওখানে ডাব কেটে খেলাম। নাস্তা করে  রওনা দিলাম ছেড়া দ্বীপ। রওনা দিতেই একজন মাঝি বিশাল বড় বড় কিছু ক্রেব দেখালো। KING CRAB.  কিনে ফেললাম। রেখে গিলাম একটা হোটেলে।

সেন্ট মার্টিন থেকে প্রায় ১০ কিলো দুরে ছেড়া দ্বীপ।  দারুন পথ টা। এক পাশ জুড়ে কেওয়া বন, অন্য পাশে সাগর। যাওয়ার পথে সারি সারি নারকেল গাছ। ও হ্যাঁ। সেন্ট মারটিন কে নারকেল জিঞ্জিরা বলে স্থানীয়ও রা। যাই হোক ওখান থেকে ডাব পেড়ে খেলাম।

DSC03166

রুপবান হাসি

পথে দেখতে পেলাম মাঝি এনেছে সাপলা মাছ। অদ্ভুত দেখতে।

DSC03146

সাগর পারের হাওয়া গায়ে মেখে আমরা এগোতে লাগলাম। সত্যি, হেটে না গেলে অনেক কিছু মিস করতাম।

পথে চলল ফোটোসুট।

DSC03157

DSC03168

সাগরের তীর ধরেই বালি দিয়ে ট্র্যাকিং করে এক সময় পৌঁছে গেলাম। আহ। নিল সসচ্ছ পানি।

DSC03188 

আমরা আর দেরি না করে ঝাপিইয়ে পড়লাম।

DSC03196

আহা পানি কি দারুন স্বচ্ছ আর নীল। পানির নিচে পরিস্কার দেখতে পেলাম নানা রঙের মাছ। পানি তে নেমে গেলাম।  আফসোস হলো কোন ওয়াটার প্রুফ ক্যামেরা নেই বলে। অবশ্যই পরের বার নিয়ে যাবার চেস্টা করবো।

ছেড়া দ্বীপ এ হোসেন আলির পরিবার আমাদের সাগরের তাজা মাছ ধরে ভাজি করে খাওয়াল। দারুন। ছেড়া দ্বীপ এ অনেক ক্ষন পানিতে ছিলাম।

দ্বীপ এর ৩ টা অংশ। আমরা মাঝের অংশে ছিলাম। তীরে সব বিশাল বিশাল শৈবাল ও প্রবাল পাথর। দেখতে বেশ লাগে।

DSC03204

vlcsnap-2013-12-03-10h58m16s54

DSC03218

DSC03221

DSC03225

DSC03248

DSC03254

DSC03263

জাক, অনেক মজা করে, ৪ টায় রওনা দিয়ে ফিরে এলাম সন্ধ্যায়। বলা বাহুলো আপনি চাইলে স্পীড বোট করে যেতে পারেন – ২০০০/ দিয়ে। তবে আসল মজা পাবেন ট্র্যাকিং করে গেলে। ফিরে এসে ক্রেব (কাকড়া) গুলো আমাদের ফ্রাই করে দিলো। খেতে খেতে দেখলাম বিশাল বড় একটা মাছ ধরে নিয়ে যাচ্ছে। ওটা কিনে ফেলা হলো। ঠিক হলো রাতে বারবিকিউ করা হবে। ওরা হোটেল থেকে মেশিন নিয়ে করতে চেয়েছে। আমি বললাম না,  আদিম ভাবেই হোক। নিজেরা গাছ কেটে কেম্প ফায়ার করে, নিজেরা ফ্রাই করবো।

রাতে চলল বারবি বিকিউ – সাগরের পাড়ে। এতো মজা হয়েছিলো মাছটা – স্বাদ এখনো লেগে আছে।

DSC03306

রাতে চলল বারবি বিকিউ – সাগরের পাড়ে। এতো মজা হয়েছিলো মাছটা – স্বাদ এখনো লেগে আছে।

vlcsnap-2013-12-03-11h09m18s11

vlcsnap-2013-12-04-04h29m54s249

DSC03269

অসাধারন কাটলো সময় টা।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

Join 262 other followers

Contact Info

Email: black_guiter@hotmail.com Skype: hassan.tanvir1
copyright @ hassantanvir.wordpress.com 2015
%d bloggers like this: